চিনা বাদামের পুষ্টিগুণ ও খাওয়ার নিয়ম
চীনা বাদাম ডায়াবেটিস রোগীদের জন্য উপকারি,হাড়ের ক্ষয় রোগ বন্ধ করে,উচ্চ রক্তচাপ নিয়ন্ত্রণ পরে,পাকস্থলী ক্যান্সার রোধ করে।এছাড়া ত্বক এবং চুলের জন্যও উপকার।

চিনা বাদামের পুষ্টিগুণ:-প্রতি ১০০ গ্রাম কাঁচা বাদামের আছে ৫৬৭ কিলোক্যালরি, ৫০ গ্রাম ফ্যাট যার মধ্যে ৭.১ গ্রাম সিচুয়েটেড অ্যাট,২২ গ্রাম সোডিয়াম। কার্বোহাইড্রেড আছে ১৬ গ্রাম। উচ্চ মাত্রায় প্রোটিন ২৬ আছে।এছাড়াও আছে ভিটামিন ক্যালসিয়াম আয়রন ও পটাশিয়াম।

 



 

চিনা বাদামের উপকারিতা:-
১:রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা বৃদ্ধি করে:-চিনা বাদামের আছে অ্যান্টি-অক্সিডেন্ট।যা শরীরের রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা বৃদ্ধি করে।
২:ওজন হ্রাস করতে সাহায্য করে:-নিয়মিত ১মুঠো বাদাম খেলে অতিরিক্ত ওজন হ্রাস করতে সাহায্য করে।
৩:ডায়াবেটিস নিয়ন্ত্রণ করে:-চিনা বাদামে আছে অ্যান্টি-অক্সিডেন্ট।যা ডায়াবেটিস নিয়ন্ত্রণে সাহায্য করে।তাই শুয়ার আগে জলে ১০-১৫ টি বাদাম ভিজিয়ে রাখুন পরের দিন সকালে খাবেন। ডায়াবেটিস নিয়ন্ত্রণে থাকে।
৪:মস্তিষ্ককে সক্রিয় করে:-চিনা বাদাম খেলে স্মৃতিশক্তি উন্নত করে এবং মস্তিষ্ককে সক্রিয় করে।
৫:হৃদরোগের আশঙ্কা হ্রাস করে:-চিনাবাদামে আছে পরিমাণ মনো- স্যাচুরেটেড ফ্যাটি অ্যাসিড, ওমেগা-৬ ফ্যাটি অ্যাসিড থাকে।এটি রক্ত সংবহন নিয়ন্ত্রণে রাখে।ফলে হৃদরোগ আশঙ্কা হ্রাস হয়।
৬:ক্যানসারের আশঙ্কা হ্রাস করে:-চিনাবাদামে আছে প্রচুর পরিমাণে ভিটামিন ই।এটি ফ্যাটে দ্রবীভূত একটি অ্যান্টি-অক্সিড্যান্ট।এটি কোষকে অক্সিডেটিভ স্ট্রেস সংক্রান্ত ক্ষতির থেকে রক্ষা করে। তাই ক্যানসারের আশঙ্কা হ্রাস করে।
৭:সকালে খালি পেটে বাদাম খাবার উপকারিতা:-সকালে চিনাবাদাম ভিজিয়ে খালি পেটে খেলে গ্যাস ও অ্যাসিডিটির দূর হবে।

চিনা বাদামের অপকারিতা:-
১:খুব বেশি বাদাম খেলে শরীরে ক্যালরি বৃদ্ধি পেতে পারে।
২:যেসব ব্যক্তিদের বাদামে অ্যালার্জি আছে তারা বাদাম খাবেন না।

 



 

চিনা বাদাম কোন সময়ে খাওয়া উচিত এবং কিভাবে ও কতটা খাওয়া উচিত:-
সকালে খালি পেটে খাবেন না।সপ্তাহে ৬-৭ গ্রাম বাদাম ৪-৫ দিন খাওয়া যেতে পারে।৮-১০ ঘণ্টা বাদাম জলে ভিজিয়ে রেখে খাবেন।



 

 582 total views,  3 views today

বাংলা English