মাদক ব্যবসায়ী বিজিবির হাতে আটক

 

 

কুড়িগ্রামের ভূরুঙ্গামারীতে এক অন্তঃসত্ত্বা স্ত্রীকে তল পেটে লাথি মেরে হত্যার অভিযোগে স্বামীকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ। গ্রেপ্তারকৃত ওই স্বামীর নাম কফিল উদ্দিন। সে ভূরুঙ্গামারীর শিলখুড়ি ইউনিয়নের উত্তর ধলডাঙ্গার শালঝোড় গ্রামের বাসিন্দা। ময়নাতদন্তের রিপোর্ট পাওয়ার পর বৃহস্পতিবার রাতে পুলিশ তাকে গ্রেপ্তার করে এবং শুক্রবার সকালে আদালতে প্রেরণ করে।

 


 

উল্লে্খ্য, শিলখুড়ি ইউনিয়নের উত্তর ধলডাঙ্গা গ্রামের আব্দুল গফুরের মেয়ে গোলাপী বেগমের সাথে প্রায় সাত বছর আগে একই ইউনিয়নের শালঝোড় গ্রামের কপিল উদ্দিনের বিয়ে হয়। গত ১২ অক্টোবর সোমবার বিকেলে তুচ্ছ ঘটনাকে কেন্দ্র করে গোলাপী বেগমের সাথে কফিল উদ্দিনর ঝগড়া বাঁধে। এসময় কফিল উদ্দিন গোলাপী বেগমের পিঠে আঘাত করে এবং তল পেটে লাথি মারেন। এতে গোলাপী বেগম জ্ঞান হারিয়ে ফেললে প্রথমে গ্রাম্য চিকিৎসক দিয়ে তার চিকিৎসা করানো হয়।

 


 

পরে অবস্থার অবনতি হলে গোলাপী বেগমকে ভূরুঙ্গামারী হাসপাতালে নেয়া হলে কর্তব্যরত চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষণা করে। মঙ্গলবার সকালে গোলাপী বেগমের লাশ ময়নাতদন্তের জন্য কুড়িগ্রাম সদর হাসপাতালের মর্গে পাঠায় পুলিশ। ভূরুঙ্গামারী থানার ওসি আলমগীর হোসেন জানান, ময়নাতদন্তে মৃত গোলাপী বেগমের পিঠে দু’টি এবং তল পেটে একটি আঘাতের চিহ্ন পাওয়া যায়। পরিবারের পক্ষ থেকে বৃহস্পতিবার রাতে মামলা দায়ের করা হলে রাতেই অভিযুক্ত কফিল উদ্দিনকে গ্রেপ্তার করা হয়। শুক্রবার সকালে তাকে আদালতে পাঠানো হয়েছে।

 





 1,336 total views,  2 views today

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *